প্রানের গানে (Songs of the Soul)-এর সকল শিল্পী/কলা-কুশলী-ই শ্রী চিন্ময়ের গান প্রানে ধারন করে মার্গীয় এবং আধুনিক, পূর্ব এবং পশ্চিম, শান্ত ও দ্রুত লয়, ধ্যানমগ্নতা ও আনন্দের সংমিশ্রণ ঘটিয়ে একটি সাঙ্গীতিক আবহ তৈরি করার চেষ্টা করেন।

Content

  • রেজওয়ানা চৌধুরী বন্যা সমগ্র বিশ্বে সমাদ্রিত একজন স্বনামধন্য রবীন্দ্রসংগীত শিল্পী। তাঁর ব্যক্তিগত বৈচিত্রময় সাফল্যের পাশাপাশি তিনি ১৯৯২ সালে প্রতিষ্ঠা করেন ‘সুরের ধারা’ নামের একটি রবীন্দ্রসংগীত শিক্ষা প্রতিষ্ঠান। অতি সম্প্রতি তিনি সমাজের সুবিধা-বঞ্চিত শিশুদের সংগীতের মাধ্যমে শিক্ষাদান এবং জীবন-মান উন্নয়নের জন্য ‘উন্নয়নের জন্য সংগীত’ (Music for Development)-নামক একটি প্রকল্প নিয়ে কাজ করে যাচ্ছেন।
  • গান্ধর্বলোক অর্কেস্ট্রা- গান্ধর্বলোক অর্কেস্ট্রা পনেরটিরও বেশি দেশের নামী-দামী সঙ্গীতশিল্পী এবং কলা-কুশলী নিয়ে সুগঠিত একটি আন্তর্জাতিক অর্কেস্ট্রা দল। ট্যুর ভেদে এই দলে ৬০ থেকে ১০০ জন সদস্য একযোগে, একই মঞ্চে কাজ করে থাকে। শ্রী চিন্ময় ২০০৭ সালে এই অর্কেস্ট্রা সৃষ্টি করেন, এখন যা পরিচালনা করেন পঞ্চজন্য ব্যুরী নামে খ্যাত একজন বিশিষ্ট ধ্রুপদী গিটার-বাদক। মূলত: এঁর পরিশীলিত সংগীতায়োজনের মাধ্যমেই শ্রী চিন্ময়ের সরল এবং নিখাদ কথা ও সুরের গানগুলো বিমূর্ত ও নাটকীয় রূপে উপস্থাপিত হয়।

প্রানের গান (Songs of the Soul) কনসার্টে মূলত: বিভিন্ন দেশের সংস্কৃতির সাথে, বিভিন্ন ধরনের সংগীতের সাথে মিশেল ঘটিয়েই সংগীত পরিবেশন করা হয়। যে দেশেই তারা কনসার্ট করুন না কেন, সেই দেশের সংস্কৃতির সাথে মিল ঘটাতে সেখানের উল্লেখযোগ্য প্রতিষ্ঠান/সংগঠনের সাথে যুক্ত ভাবেই সেই কনসার্ট আয়োজন করেন। সেখানের সকল গুনী শিল্পীদের সাথে একাত্ম হয়ে তারা এই ভাবেই দেশ-কাল-পরিবেশের সাথে মিল রেখে সংগীত পরিবেশন করেন যাতে করে দর্শক-শ্রোতাবৃন্দও এর সাথে একাত্ম হয়ে যেতে পারে।